ঘুমের ঔষধ খাইয়ে প্রেমিকের সহযোগিতায় স্বামীকে ৬ টুকরো

এক যুবকের স্ত্রীর স'ঙ্গে পরকিয়ার জেরে মা'রধরের প্রতিশোধ নিতেই স্ত্রী ও তার প্রেমিক মিলে স্বামীকে হ'ত্যার পর তার লা'শ খন্ড-বিখন্ড করে গু'ম করেছে। ভিক্টিম সুমন মোল্লা (৩২) বাগের হাটের চিতলমা'রী গো'লা বরননী এলাকার মো. জাফর মোল্লার ছেলে। তিনি মহানগরীর কাশিমপুরের সারদাগঞ্জ এলাকায় স্ব-স্ত্রীক ভাড়া থাকতেন। রোববার দুপুরে মহানগর পুলিশের সদর দ'প্ত রে এক সংবাদ সম্মেলনে উপ-কমিশনার জাকির হাসান ওই তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানা যায়, সুমনের স্ত্রী আরিফা ও তনয় সরকারের মধ্যে পরকিয়া সম্পর্ক ছিল। এনিয়ে সুমন তনয় সরকারকে কয়েকবার মা'রধর করেছিল।

এর প্রতিশোধ নিতেই তারা সুমনকে হ'ত্যার পরিকল্পনা করে। পরে ১৯ এপ্রিল রাত সাড়ে ১০টার দিকে স্বামীকে দুধের স'ঙ্গে ঘু'মের ঔষধ খাইয়ে দেয়। সুমন ঘু'মিয়ে পড়লে আরিফা ফোন করে তনয়কে ডেকে আনে। পরে বালিশ চাপা দিয়ে সুমনকে হ'ত্যার পর তার লা'শ বসত ঘরের ভেতর রেখে দেয়। পরদিন করাত দিয়ে সুমনের লা'শের মাথা, দুই হাত ও দুই পা বিচ্ছিন'্ন করে চা'পাতি দিয়ে পেট কে'টে দেয়। পরে হাত-পা বিহীন দে'হটি কাঁথায় মুড়িয়ে জামাল উদ্দিনের বাড়ির পাশে উন্মুক্ত সেপটিক ট্যা'ঙ্কে/নদর্মায় ফেলে দেয় এবং দে'হের অবশিষ্টাংশ (পাঁচটি খন্ড) পলিথিনে মুড়িয়ে চক্রবর্তী তেতুইবাড়ি এলাকার মোজা তৈরির কারখানার পাশে থাকা ময়লার ভাগাড়ে ফেলে রাখে।

XMA Header Image
গত ২১ এপ্রিল দুপুরে এলাকাবাসীর কাছে খবর পেয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কাশিমপুরের সারদারগঞ্জের হাজী মা'র্কেট পুকুর পাড় এলাকার থেকে মাথা ও হাত-পা বিহীন অবস্থায় অজ্ঞাত হিসেবে সুমনের অর্ধগলিত লা'শ উ'দ্ধার করে পুলিশ। পরে পুলিশ লা'শটি শ’হীদ তাজউদ্দীন আহম'দ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ময়নাত'দন্তের পর অজ্ঞাত লা'শ হিসেবে গাজীপুর সিটি কবরস্থানে দা'ফন করা হয়।

পরদিন ২২এপ্রিল অজ্ঞাতনামা আ'সামির বিরু'দ্ধে কাশিমপুর থানার এস আই মোজাম্মেল হক বাদী হয়ে থানায় মা'মলা দায়ের করেন। মা'মলার পর এ ঘটনায় জড়িত সন্দে'হে আরিফা ও তার প্রেমিক তনয় সরকারকে আট'ক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদকালে তারা সুমনকে হ'ত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করে। পরে ১৬৪ধা'রায় জবানব'ন্দি দেয়ার জন্য আ'দালতে পাঠানো হয়েছে।

XMA Header Image
এ ঘটনায় গ্রে''প্ত ার স্ত্রী দিনাজপুরের চিরির বন্দর থানার নারায়নপুর এলাকার মৃ'ত আশরাফ আলীর মেয়ে মোসা. আরিফা (২৩) ও তার প্রেমিক ফরিদপুরের মধুখালী থানার নরকোনা এলাকার আদিত্য সরকারের ছেলে তন্ময় সরকার (২৫) পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। তনয় সরকারও সারদাগঞ্জ এলাকায় বসবাস করতেন।

About admin

Check Also

রিমান্ড শেষে কারাগারে মামুনুল

ছয় মা'মলায় ১৮ দিনের রি'মান্ড শেষে কারা'গারে পাঠানো হয়েছে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে। আজ শনিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *