দুই বছর আগেই আমাদের বিচ্ছেদ হয়েছে: মাহি

হঠাৎ শোনা গেল ঢালিউড তারকা মাহিয়া মাহির বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। বেশ আগেই তাঁরা এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে তিনি সেটা প্রকাশ করেছেন। কেন এই বিচ্ছেদ, এখন কী ভাবছেন তিনি। এসব নিয়ে কথা বললেন প্রথম আলোর স'ঙ্গে।

এই মুহূর্তে কোথায় আছেন?

নানাবাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জে। ঈদের পরদিন রাজশাহীতে আমা'দের বাড়িতে এসেছিলাম। সেখান থেকে গতকাল রাতে এসেছি নানাবাড়িতে। কয়েক দিন থাকব এখানে।

বিচ্ছেদের পরও গত দুই বছর আমর'া দুজন বিভিন্ন জায়গায় একস'ঙ্গে ঘুরেছি, আড্ডা দিয়েছি। সেসব ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এসেছে। এসব দেখে মানুষ আসল ঘটনাটা জানতে পারেনি। এই ছবি দেখে সবাই ভাবেন, আমা'দের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই

শনিবার মধ্যরাতে আপনার ফেসবুক পেজে স্বামী অ’পুর স'ঙ্গে সম্পর্ক বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ করেছেন। হঠাৎ করেই কেন এ সি'দ্ধান্ত নিলেন?

এই সি'দ্ধান্ত হঠাৎ করে নেওয়া নয়। প্রায় দুই বছর আগে আমা'দের বিচ্ছেদ হয়েছে। কিন্তু ব্যাপারটা দুই পরিবার ছাড়া কেউ জানত না। বলতে পারেন, সবাইকে জানানোটা হঠাৎ করেই। জানানোর কারণও আছে। বিচ্ছেদের পরও গত দুই বছর আমর'া দুজন বিভিন্ন জায়গায় একস'ঙ্গে ঘুরেছি, আড্ডা দিয়েছি। সেসব ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এসেছে। এসব দেখে মানুষ আসল ঘটনাটা জানতে পারেনি। এই ছবি দেখে সবাই ভাবেন, আমা'দের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। মানুষ আমাকে প্রায়ই জিজ্ঞাসা করে, আমি ঢাকায় না কি শ্বশুরবাড়ি সিলেটে। এটা শুনতে নিজের কাছেই পেইন লাগে, অস্বস্তি লাগে। আমা'র মনে হয়, অ’পুকে আরও বেশি অস্বস্তিতে পড়তে হয়। কারণ, মানুষ তো জানেন না আমা'দের বিচ্ছেদ আগেই হয়ে গেছে। আমা'র মনে হয়েছে বি'ষয়টি সবার জানা উচিত। অ’পুর জন্যই সেটা বেশি দরকার। কারণ, বি'ষয়টি পরিষ্কার না হলে সে তো এগোতে পারবে না। আমি হয়তো আমা'র মতোই থেকে যাব'। নিজের মতো করে মানিয়ে নিতে পারব। আমি অ’পুর পরিবারকে বেশি ভালোবাসি। তাই মানবিক কারণেই বি'ষয়টি পরিষ্কার করে দিলাম।

এত দিন বলেননি কেন?

মনে হয়েছিল এই সময়টার মধ্যে সব জাগতিক ঝামেলাগু'লো কাটিয়ে উঠতে পারব। কিন্তু পারিনি। অ’পু আমাকে খুব ভালোবাসে। সে বেশি করে চাইত সর্ম্পকটা ধরে রাখতে। সেই ভালোবাসা থেকেই অ’পু চেয়েছিল ঘটনাটি প্রকাশ না করার জন্য। সে ভেবেছিল, হয়তো একটা সময় সব ঠিক হয়ে যাব'ে। তাঁর কারণেই এত দিন ঘটনাটি কাউকে জানাইনি। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে মনে হচ্ছিল, বি'ষয়টি গো'পন রেখে অ’পুর ক্ষ'তি করে যাচ্ছি। আমা'র কোনো রাইট নেই তাঁর ক্ষ'তি করার। আসলে এত দিন ধরে জানানো, না জানানোর দ্বিধাদ্বন্দ্ব থেকে বের 'হতে চেয়েছি আমি।
মাহিয়া মাহি এখন ‘সি'ঙ্গেল’

সবাই আপসেট। আমা'র শ্বশুরবাড়ি থেকে সবাই ফোন করেছিলেন। আমি ভয়ে ফোন ধরিনি। বি'ষয়টি নিয়ে আমা'র মা–ও খুব আপসেট।

মাহিয়া মাহি

ফেসবুকে বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ করার পর দুই পরিবারের প্রতিক্রিয়া কী?

সবাই আপসেট। আমা'র শ্বশুরবাড়ি থেকে সবাই ফোন করেছিলেন। আমি ভয়ে ফোন ধরিনি। বি'ষয়টি নিয়ে আমা'র মা–ও খুব আপসেট।

অ’পুর স'ঙ্গে শেষ দেখা, শেষ কথা কবে হয়েছে?

খুব কাছাকাছি সময়ে দেখা হয়নি। তবে মুঠোফোনে প্রায়ই কথা হয়। গতকাল রাতেও কথা হয়েছে। বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ করার পরও কথা হয়েছে। তবে কী কথা হয়েছে বলতে চাইছি না।
অ’পু ও মাহি

আপনাদের সম্পর্কের টানাপোড়েনের কথা বেশ আগে থেকেই শোনা যাচ্ছিল। শুনেছি, বি'ষয়টি মিটমাটের চেষ্টাও করেছিলেন দুজন। ঘটনাটি ঠিক কী ঘটেছিল?

অ’পু তো সব সময়ই চেষ্টা করেছে। সে কখনই চায়নি আমা'দের সম্পর্কটা শেষ হয়ে যাক। অ’পু প্রচণ্ড আড্ডাবাজ, ফুর্তিবাজ একটি ছেলে। বড় কথা হচ্ছে, ভালো মনের ছেলে সে। এ কারণেই অ’পুকে আমা'র পছন্দ। শুধু তা–ই নয়, অ’পুর মা–বাবা ও পরিবারের লোকজন আমা'র খুবই প্রিয়। তাঁদের সামাজিক মর'্যাদাও আমা'র চেয়ে বেশি। আমা'র মনে হয়, অ’পুর মতো ভালো ছেলে আমা'র জীবনে আর আসবে না। সে এখনো একস'ঙ্গে থাকতে চায়।
বিজ্ঞাপন

About admin

Check Also

আজ হোক বা কাল, আমার কাছে ফিরে আসবে মাহি: বললেন সাবেক স্বামী

বিচ্ছেদ হয়ে গেলেও স্ত্রী মাহি আবারও তার কাছে ফিরে আসবে বলে আশা করেন সাবেক স্বামী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *