বিধবা রহিমাকে ভালোবেসে বাংলাদেশে ঘর বেধেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিস্ট মার্ক

প্রেমের টানে যুগে যুগে বাধা পেরিয়েছে মানুষ। বাংলাদেশের রহিমা আর যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিস্ট মা'র্ক হোগোলের ভালোবাসাও তার ব্যতিক্রম নয়। যশোরের কেশবপুরে রহিমা-ক্রিস্ট জুটি সুখে সংসার করছেন তিন বছর ধরে।

স্বপ্নে দেখা রাজকন্যার জন্য পাড়ি দিয়েছেন সাত সাগর তেরো নদী। মা'র্কিন মুলুকের প্রকৌশলী ক্রিস্ট মা'র্ক হোগোল ছেড়েছেন চেনা গণ্ডি আর পরিবেশ। বিয়ে করেছেন যশোরের রহিমাকে।

ক্রিস্ট মা'র্ক হোগোল জানান, আমা'র স্ত্রী খুব সুন্দরী আর বু'দ্ধিমতী। তাকে পেয়ে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি। রোজ ‘আল্লাহ’র কাছে মন থেকে কৃতজ্ঞতা জানাই। ও আমা'র হৃদয়।

কেশবপুর উপজে'লার মেহেরপুর গ্রামের রহিমা খাতুন। শৈশবে অভাবের তাড়নায় বাবা মায়ের সাথে পাড়ি জমান ভারতে। ১৩ বছর বয়সে সেখানে প্রথম বিয়ের পর জন্ম নেয় তিন সন্তান। একদিন জায়গাজমি বেচে নিরুদ্দেশ হয় স্বামী। জীবিকার সন্ধানে রহিমাও পাড়ি জমান মুম্বাই শহরে। এক সন্ধ্যায় সেখানেই ক্রিস্ট মা'র্ক হোগোলের সাথে পরিচয় হয় রহিমা'র তারপর বিয়ে।

ক্রিস্ট মা'র্ক হোগোল বলেন, ভাষা জানতাম না, আমা'দের মাঝে কিছু তো একটা কেমিস্ট্রি ছিল। রহিমা শুধু বাংলা আর হিন্দি জানতো। আমি জানতাম ইংরেজি। দু’জনে কেউ কারও কথা বুঝিনি সেদিন। কিন্তু দু’জনের হৃদয় ভাষার বাধাকে অতিক্রম করেছিল।

XMA Header Image
বিয়ের পর বছর কয়েক নানা দেশে ঘুরে তিন বছর আগে রহিমা স্বামী-সন্তান নিয়ে ফিরে আসেন বাবার ভিটা যশোরে কেশবপুর গ্রামে। তারপর থেকে সেখানেই আছেন তারা। ব্যবসার পাশাপাশি এখন কৃষিকাজও করছেন এই দম্পত্তি। রহিমা'র সন্তানেরাও খুশি ভিনদেশি বাবাকে নিয়ে।

ক্রিস্টের পরিবার থাকে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে। তবে রহিমাকে ভালোবেসে বাকি জীবনটা এখানেই কা'টাতে চান তিনি।

About admin

Check Also

রিমান্ড শেষে কারাগারে মামুনুল

ছয় মা'মলায় ১৮ দিনের রি'মান্ড শেষে কারা'গারে পাঠানো হয়েছে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে। আজ শনিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *