নারীবাদীরা আজকে কোথায়: ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন

গণমাধ্যমের উপর নি'র্যাতন বাংলাদেশে নতুন কোনো ঘটনা নয় উল্লেখ করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন প্রশ্ন তুলেছেন, গত ১৩ বছরে সাগর-রুনী হ'ত্যাকাণ্ড, আমা'র দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান-এর উপর অকথ্য নি'র্যাতন এবং তাঁর পত্রিকা বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনা প্রত্যক্ষ করেননি? ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন-এর মতো একজন মানুষকে মা'মলায় মাসের পর মাস কারা'গারে কা'টাতে হয়েছে।

ইশরাক হোসেন বলেন, সেদিন যে নারীবাদীরা বের হয়েছিলেন, শাহবাগে আন্দোলন করে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে কারা'গারে পাঠিয়েছিলেন, আজকে আপনারা কোথায়? নারী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে এভাবে নি'র্যাতন করা হলো, আট'ক রেখে নি'র্যাতন করা হলো। কেন আপনারা রাস্তায় নামছেন না?

বুধবার (১৯ মে) দুপুরে রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রথম আলো’র সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম ও বিএফইউজে’র সাবেক সভাপতি রুহুল আমিন গাজী’র মুক্তির দাবিতে বিক্ষো'ভ সমাবেশে ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে’র উদ্যোগে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বর্তমান সরকারের কাছে মুক্তি চাইলেও রোজিনা’র মুক্তি মিলবে না বলে মন্তব্য করেন বিএনপি’র এই তরুণ নেতা। তিনি বলেন, আসুন, দলমত নির্বিশেষে সবাই রাস্তায় নামি। তাহলে যদি রোজিনা ইসলাম-এর মুক্তির আশা পাই।

রোজিনা ইসলাম-এর মুক্তি চেয়ে তিনি বলেন, একজন মুক্তিযো'দ্ধার সন্তান হিসেবে এই সমাবেশে সং'হতি জানাতে এসেছি। কার কাছে রোজিনা ইসলাম-এর মুক্তির দাবি জানাবো? অগণতান্ত্রিক সরকারের চরিত্র হচ্ছে, যারা সত্য তুলে ধরবে তাদের নির্মূল করা।

ইশরাক হোসেন অ'ভিযোগ করেন, আজকে বিচার ব্যবস্থা ধ্বং'স হয়ে গেছে। প্রশাসনে দলীয়করণ পোক্ত হয়েছে। ভোট ব্যবস্থা বলে কিছু নেই। সুতরাং মুক্তি চাইলে মুক্তি মিলবে না। রাজপথের আন্দোলনেই রোজিনা ইসলাম-এর মুক্তি মিলবে।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কাদের গণি চৌধুরী বলেন, সাংবাদিকরা তথ্য চুরি করে না। সাংবাদিকরা তথ্য উ'দ্ধার করে। তথ্য চুরি করে দুর্নীতিবাজ, লুটেরা, আমলারা। রোজিনা’র তথ্য উ'দ্ধারকে আমি অ’পরাধ মনে করি না। ৮২০ জন কর্মচারি নিয়োগ দিচ্ছে কোটি কোটি টাকার বিনিময়ে। সেই তথ্য কি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কোনো সাংবাদিককে দিতো? সেই তথ্য উ'দ্ধার করে রোজিনা কী অ’পরাধ করেছে? আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রোজিনাকে মুক্তি বা দিলে কঠিন কর্মসূচির ডাক দেওয়া হবে। পেশাদারিত্বের ক্ষেত্রে কোনো আপোস নেই।

বিএফইউজে’র সভাপতি শওকত মাহমুদ বলেন, এই আইনে বাংলাদেশে কোনো সাংবাদিক গ্রে'ফতার সম্ভবত এই প্রথম। আইনটি ব্রিটিশরা করেছিলো বিদেশি গু''প্ত চরদের ধ’রার জন্য। এই আইন প্রযোজ্য হলো সরকারি কর্মক'র্তা, কর্মচারিদের জন্য। যারা সরকারের কোনো তথ্য বিদেশে পাচার করে। সরকারকে বলেছিলাম, এই আইন বাতিল করার জন্য। বাতিল না করে সরকার বরং ডিজিটাল নিরাপ'ত্তা আইনের মধ্যে ধা'রাটি ঢুকিয়ে দিয়েছে।

সোমবার দুপুরে পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে গেলে রোজিনা ইসলামকে পাঁচ ঘণ্টার বেশি সময় আট'কে রাখা হয়। একপর্যায়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। রাত সাড়ে আট'টার দিকে তাঁকে শাহবাগ থানায় নিয়ে আসা হয়। রাত ১২টার দিকে পুলিশ জানায়, রোজিনা ইসলাম-এর বিরু'দ্ধে অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মা'মলা হয়েছে এবং এই মা'মলায় তাঁকে গ্রে'ফতার দেখানো হয়।

ম'ঙ্গলবার (১৮ মে) রোজিনা ইসলামের রি'মান্ড নাকচ করে তাঁকে কাশিমপুর মহিলা কারা'গারে পাঠান ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আ'দালত। আগামীকাল বৃহস্পতিবার তাঁর জামিনের শুনানি 'হতে পারে। বুধবার (১৯ মে) রোজিনা ইসলামের বিরু'দ্ধে করা অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মা'মলার ত'দন্তভার পুলিশের গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) হস্তান্তর করা হয়।

About admin

Check Also

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের মায়ের ইন্তেকাল

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের মা ফৌজিয়া মালেক ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃ'ত্যুকালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *