এ যেন সিনেমাকেও হার, প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীর বিয়ে দিলেন স্বামী

বলিউডের তুমুল জনপ্রিয় ‘হা'ম দিল দে চুকে সানম’ সিনেমায় ইচ্ছার বিরু'দ্ধে ঐশ্বরিয়া রাইকে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল অজয় দেবগনের স'ঙ্গে। বিয়ের কয়েক দিনের মধ্যেই অজয় বুঝতে পেরেছিলেন ঐশ্বরিয়ার মনের পুরোটা জুড়ে ছিলেন সালমান খান।

নিজেই নববধূকে স'ঙ্গে নিয়ে বিদেশে পাড়ি দিয়েছিলেন সালমানের স'ঙ্গে দেখা করার জন্য। স্ত্রীকে তার প্রেমিকের স'ঙ্গে বিয়ে দিতে চেয়েছিলেন তিনি।

১৯৯৯ সালে মুক্তি পাওয়া সেই ছবি দৃশ্য এবারে বাস্তবে দেখা গেল ভারতের উত্তরপ্রদেশের কানপুরে। শনিবার কলকাতার বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার বলছে, মাত্র ৩ মাসের বিয়ে করা স্ত্রীকে তারই প্রেমিকের স'ঙ্গে বিয়ে দিলেন এক ব্যক্তি। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে চার হাত করলেন এক।

কানপুরের চকেরি থানার অন্তর্গত সানিগওয়ান গ্রামে সম্প্রতি এই ঘটনা ঘটে। গত ৯ ফেব্রুয়ারি সুজিত ওরফে গোলুর বিয়ে হয়েছিল পাশের গ্রাম শ্যামনগরের মেয়ে শান্তির স'ঙ্গে।

ধূমধাম করে সমস্ত রীতি পালন করেই বিয়ে হয়েছিল দু’জনের। বিয়ের পর স্বামীর ঘরে থাকতে শুরুও করেন শান্তি। কিন্তু রীতি মেনে বিয়ের কয়েক দিন পর বাবার বাড়িতে আসার পর আর স্বামীর কাছে ফিরতে চাননি।

স্ত্রীকে অনেকবার বাড়ি ফিরিয়ে নিতে গিয়েছিলেন সুজিত। কিন্তু শান্তি রাজি হননি। কেন শ্বশুরবাড়ি যেতে চাইছেন না তাও প্রথমে বলতে চাইছিলেন না। অনেক চেষ্টার পর স্বামীর কাছে মুখ খোলেন শান্তি। জানান— তার মনের মানুষের কথা।

কীভাবে বাড়ির লোকজন তার ইচ্ছার বিরু'দ্ধে বিয়ে দিয়েছেন; তাও স্বামীর কাছে পরিষ্কার করেন তিনি। সে দিনই প্রথম লক্ষ্ণৌয়ের বাসিন্দা রবির কথা স্বামী সুজিতকে বলেন শান্তি। রবি শান্তির প্রেমিক।

স্ত্রীর মুখ থেকে একথা শোনার পর সুজিত তাদের প্রেমের পরিণতি দেওয়ার মনস্থির করেন। শান্তির বাড়ির লোকজনের স'ঙ্গে কথা বলে তিনি রবির খোঁজ শুরু করেন। তারপর স্ত্রীর বিয়ে দেন তার প্রেমিকের স'ঙ্গে।

‘হা'ম দিল দে চুকে সানম’ ছবির স'ঙ্গে এর একটাই পার্থক্য। ছবিতে শেষ মুহূর্তে তার প্রতি স্বামী অজয়ের ভালোবাসা উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন ঐশ্বরিয়া। শেষে অজয়ের কাছেই ফিরে এসেছিলেন তিনি। বাস্তবের ছবিটা অবশ্য একটু আলাদা। স্বামীকে ছেড়ে প্রেমিকের কাছেই ফিরে যান শান্তি।

About admin

Check Also

রিমান্ড শেষে কারাগারে মামুনুল

ছয় মা'মলায় ১৮ দিনের রি'মান্ড শেষে কারা'গারে পাঠানো হয়েছে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে। আজ শনিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *