প্রেমিকের বাড়ীতে স্কুল ছাত্রীর অনশন বিয়ের দাবিতে !

লক্ষ্মীপুর কুশাখালী ইউনিয়নে সুতার বেপারী বাড়ীতে বিয়ের দাবিতে অনশন করেছে স্কুলছাত্রী। এর আগে বিয়ে করবে শপথ করে স্কুল ছাত্রীকে একাধিকবার ধ’র্ষ’ণ করার অ'ভিযো’গ উঠেছে ধ’র্ষ’ক আল আমিনের বিরু’'দ্ধে। এ ঘটনায় চন্দ্রগঞ্জ থানায় বাদী হয়ে মা'মলা করেন ভিকটিমের মা জাহানারা বেগম। জে'লার চন্দ্রগঞ্জ থানার কুশাখালী ইউনিয়নের ম'দনা গ্রামে সুতার বেপারী বাড়ীর নেছার আহম্ম'দের ছেলে আল আমিন।

সরেজমিনে গিয়ে কুশাখালী ইউনিয়নে ম'দনাগ্রামে সুতার বেপারী বাড়ীতে ধ’র্ষ’ক আল আমিনের বাবার ঘরের সামনে ভিকটিম সাজেদা আক্তার রিনাকে বিয়ের দাবিতে অনশনরত অবস্থায় দেখা যায়। এ সময় তিনি বলেন, আমি কুশাখালী এ্যানী চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী। স্কুল আসা-যাওয়ার পথে আল আমিন আমাকে বিভিন্ন সময় কু প্রস্তাব দিত। আমি রাজি না হওয়ায় একপর্যায়ে মোহা'ম্ম'দ উল্যাহ নামীয় এক ছেলেকে এনে ভ’য়ভী’তি দেখিয়ে আমা'র সাথে সম্পর্ক করে।

তার প্রতি আমা'র বিশ্বা'স জন্মাতে সে কোরআন ধরে শপথ করে বলে আমাকে বিবাহ করে স্ত্রীর মর'্যাদা দিয়ে ঘরে তুলবে। এ বলে আমা'র ইচ্ছার বিরু’'দ্ধে বিভিন্ন সময় আমাকে ধ’র্ষ’ণ করে। ইতোমধ্যে সে আমাকে বিয়ে করবেনা বলে জানিয়ে দেয়। ভিকটিম জানান, আজ আমি বিয়ের দাবিতে আল আমিনের বাড়ীতে অবস্থান করছি। আমাকে তার মা অনেক মা’রধ’র করে এবং পানির সাথে মর'িচ মিশিয়ে আমা'র গায়ে দেয়ার চেষ্টা করলে তার বোন পলি এসে বাধা দেয়।

ইউপি সদস্য মোঃ কামাল হোসেন জানান, উভয় পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে সাতদিনের মধ্যে বি'ষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে স্কুল ছাত্রীর অনশন ভে'ঙ্গে তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছি। এ সময় ইউপি সদস্য জামাল হোসেন সহ বিপুল সংখ্যক স্থানীয় লোজন উপস্থিত ছিলেন। ভিকটিমের মা জাহানারা বেগম জানান, ধ’র্ষ’ণের ঘটনায় নেছার আহম্ম'দের ছেলে আল আমিন কে প্রধান আ'সামি করে

তিনজনের বিরু'দ্ধে চন্দ্রগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নি’র্যা’তন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত) ২০০৩ এর ৯(১) তৎসহ দঃবিঃ ৫০৬ ধা'রায় মা'মলা দায়ের করি। যার নং-৪, তারিখ-২/১২/২০২০ইং। মা’মলার অ’পর আ’সামিরা হলেন, ম'দনা গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র মোহা'ম্ম'দ উল্যা ও একই গ্রামের আবদুল হাসিমের ছেলে নেছার আহম্ম'দ।

অ'ভিযু’ক্ত আল আমিনের পরিবারের পক্ষ থেকে তার বোন পলি বেগম বলেন, তার ভাই কিছুদিন পূর্বে দেশের বাহিরে চলে গেছে। ভিকটিমের পরিবারের অ'ভিভাবক কেউ আসলে বি'ষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করবে। ভিকটিম রিনাকে নি’র্যা’তনের বি'ষয় তিনি জানান, তার মা কয়েকটি বাড়ি দিয়েছে, তবে মর'িচ মিশ্রিত পানি তার গায়ে দিতে আমি বাধা দিলে পরে দিতে পারেনি বলে জানান।

About admin

Check Also

রিমান্ড শেষে কারাগারে মামুনুল

ছয় মা'মলায় ১৮ দিনের রি'মান্ড শেষে কারা'গারে পাঠানো হয়েছে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে। আজ শনিবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *