দেশ ছেড়েছেন সোবহান?

রাজধানীর গু'লশানে কলেজ ছাত্রীর মৃ'তদে'হ উ'দ্ধারের ঘটনায় দায়ের হওয়া মা'মলার আ'সামি বসুন্ধ’রা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর দেশ ছেড়েছেন বলে গু'ঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) রাতেই তিনি বিমানে করে দেশ ছেড়েছেন বলে গু'ঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। তবে তার দেশত্যাগের বি'ষয়টি নিয়ে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এদিকে ম'ঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) বসুন্ধ’রা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরের বিদেশ যাত্রার ওপর নিষে'ধাজ্ঞা দিয়েছেন আ'দালত।

আনভীরের দেশত্যাগে নিষে'ধাজ্ঞা চেয়ে ম'ঙ্গলবার পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মুখ্য মহানগর হাকিম তা মঞ্জুর করেন।

রাজধানীর গু'লশানে অ'ভিজাত ফ্ল্যাট থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উ'দ্ধার হওয়া কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়াকে 'হত্য করা হয়েছে বলে দাবি করেছে আসামীকে গ্রে'ফাতারের দাবি করেছেন তার স্বজনেরা। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীতে নিজ ফ্ল্যাট থেকে তার ঝুলন্ত মর'দে'হ উ'দ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় আ'ত্মহ'ত্যার প্ররোচনার অ'ভিযোগে বসুন্ধ’রা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের বিরু'দ্ধে মা'মলা করেছে তরুণীর পরিবার। এদিকে কলেজ ছাত্রী মুনিয়াকে হ'ত্যা করা হয়েছে বলে অ'ভিযোগ করেছেন তার ভ'গ্নিপতি ও বোন।

সাংবাদিকদের কাছে অ'ভিযোগ করে তার ভ'গ্নিপতি মিজানুর রহমান বলেন, আমা'র শ্যালিকা (মুনিয়া) আ'ত্মহ'ত্যা করেনি। তাকে হ'ত্যা করা হয়েছে। দুদিন আগেও তার স'ঙ্গে কথা বলেছি। আ'ত্মহ'ত্যা করবে এমন কোনো মোটিভেশন ছিল না। আমা'দের মনে হচ্ছে, তাকে হ'ত্যা করা হয়েছে। এখন আমর'া ফরেনসিক রিপোর্টের অ’পেক্ষা করবো।

মুনিয়ার বড় বোন নুসরাত জাহান কুমিল্লায় সংবাদিকদের বলেন, আমা'র বোনকে মানসিক নি'র্যাতন করে মেরে ফেলা হয়েছে। আমি মা'মলা করেছি। আ'সামিকে দ্রুত গ্রে'ফতার দাবি জানাই। তাঁর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

নি'হতের বড় ভাই আশিকুর রহমান সবুজ জানান, দীর্ঘদিন নিয়মিত যোগাযোগ না থাকলেও মুনিয়া আ'ত্মহ'ত্যা করতে পারে এটা মনে হয় না। ঘটনাটি রহস্যজনক বলেই মনে হয়।

মুনিয়ার জানাজা শেষে স্থানীয় প্রতিবেশীরা জানান, মুনিয়ার বাবা প্রয়াত মো. শফিকুর রহমান একজন বীর মুক্তিযো'দ্ধা ছিলেন এবং কুমিল্লার আওয়ামী লীগ নেতা। দীর্ঘদিন ভাই আশিকুর রহমান সবুজের সাথে মুনিয়া ও তানিয়ার পারিবারিক বিরোধ চলছিল, যে কারণে কুমিল্লায় নিজ বাসায় তাদের যাতায়াত কম ছিল।

এর আগে সোমবার (২৬ এপ্রিল) সন্ধ্যায় গু'লশানের একটি ভাড়া বাসা থেকে মুনিয়ার লা'শ উ'দ্ধার করা হয়। গতমাসে ওই বাসা ভাড়া নেন তিনি। তার ওই বাসায় এক শিল্পপতি প্রায়ই যাতায়াত করতেন। পরে মর'দে'হ উ'দ্ধারের ঘটনায় গভীর রাতে শিল্পপতিকে আ'সামি করে মা'মলা করেন মুনিয়ার বড় বোন।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *