বিয়েপাগল’ স্বা’মীর ‘বি,শে,ষ অ,ঙ্গ’ কাটলেন স্ত্রী, দেয়া লাগল ৭টি সেলাই

এ’কের পর এক বি’য়ে করায় স্বা’মীর পু,রু,ষা,'ঙ্গ কে’টে দিয়েছেন প্র’থম স্ত্রী। গত রোববার (২৪ জানুয়ারি) ম’য়মনসিংহের না’ন্দাইল পৌরসভার কাকচর ম’হল্লায় এ ঘ’টনা ঘটে। অ’বস্থার অ’বনতি হওয়ায় ম'ঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) ওই ব্য’ক্তিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মে’ডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থা’নীয়রা জা’নান, গত প্রায় এক বছর ধরে ওই ম’হল্লার আরশাদ আলীর বা’সায় ভাড়া থাকেন বেগম আক্তার (২৫) নামে এক না’রী। তার স্বামী সা’দ্দাম হোসেন (৩২) ঢাকার একটি কো’ম্পানিতে চাকরি করেন। এই কারণে ক’য়েক মাস পরপর স্ত্রী’র কাছে আসেন। এরমধ্যে প্রায় তিন মাস পার হলেও স্বা’মী না আ’সায় খোঁজ খবর নিয়ে দেখেন,

স্বা’মী সাদ্দাম গা’জীপুরে ও শ্রীপুরে দুই না’রী’র সাথে ব’সবাস করেন। তাছাড়া নি’জের এলাকা ভৈ’রবেও র’য়েছে তার আরও দুই স্ত্রী। তা’দের সাথে থা’কায় তার কাছে আ’সতেন অনেক দিন পর। গত ২২ জা’নুয়ারি স্বামী সা’দ্দাম হোসেন না’ন্দাইলে আসে তার কাছে। আসার পর দুই দিন পার হলেও কিছু ব’লেননি তিনি।

এ অ’বস্থায় গত রোববার সকালে বসত ঘরে শুয়ে দ’রজা বন্ধ করে দেন স্ত্রী। এক তাকে বি’য়ে করার পরও কেনো এতগু'লো বিয়ে করলো জা’নতে চাইলে অন্য বিয়ের কথা অ’স্বীকার করেন স্বামী সাদ্দাম। এতে তিনি ক্ষি'প্ত হয়ে ব্লে'ড দিয়ে আচমকা স্বা’মীর পু,রু,ষা,'ঙ্গ কে'টে দেন।

তখন ল’জ্জায় চিৎকার না দিয়ে বা কা’উকে না জানিয়ে নিজেই নান্দাইল সদর হা’সপা’তালে গিয়ে চি’কিৎসা নেন। হা’সপা’তাল সূত্রে জানা গেছে, ওই ব্যক্তির বি,শে,ষা,'ঙ্গে সাতটি সেলাই দেয়া হয়েছে। তাকে হা’সপাতা’লে ভর্তি থাকতে বলা হলেও তিনি গো’পনে সেখান থেকে চলে যান। গো’পনে অন্য স্থানে চি’কিৎসা নিতে থাকলে তার শা,রী

,রি,ক অ’বনতি হয়। এ অ’বস্থায় ফের তিনি ম’'ঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) দুপুরে নান্দাইল উপজে'লা স্বাস্থ্য ক’মপ্লেক্সে হা’সপাতালে আসলে ক’র্তব্যরত চি’কিৎসক উন্নত চি’কিৎসার জন্য তাকে দ্রুত ময়মনসিংহ মে’ডিকেল ক’লেজ হাসপাতালে যা’ওয়ার পরামর'্শ দেন। ন’ন্দাইল থানার ভা’রপ্রা'প্ত কর্মক'র্তা মিজানুর রহমান জানান, এ ঘ’টনায় থা,না,য় কেউ কোনো অ’ভিযোগ করেনি। বি'ষয় সম্পর্কে খোঁ’জ নেয়ার জন্য পু,লি,শ পা’ঠানো হয়েছে।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *