নদে ডুবে গেল মাদ্রাসাছাত্রী ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজে'লার নোয়াগাঁও গোবিন্দপুর এলাকায় রোববার দুপুরে ব্রহ্মপুত্র নদে ডুবে এক মা'দ্রাসাছাত্রীর মৃ'`ত্যু হয়েছে।চাচাতো ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে ওই ছাত্রী নদে ডুবে যায়। এ ঘ`টনায় ওই শিক্ষার্থীর পরিবার ও আশপাশের এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।নি`'হত ওই মা'দ্রাসাছাত্রীর নাম সুমাইয়া আক্তার (১২)।

সে গোবিন্দপুর গ্রামের ইসমাঈল মিয়ার মেয়ে। সে লাধুরচর ফাতেমাতুজ্জোহরা মহিলা মা'দ্রাসার মক্তব বিভাগের ছাত্রী ছিল।এলাকাবাসী জানান, উপজে'লার গোবিন্দপুর গ্রামের ইসমাঈল মিয়ার মেয়ে সুমাইয়া আক্তার তার চাচাতো ভাই রাফিকে নিয়ে বাড়ির পাশে ব্রহ্মপুত্র নদে রোববার দুপুরে গোসল করতে যায়।

এ সময় অসাবধানতাবসত রাফি নদের পানিতে তলিয়ে যেতে থাকে। একপর্যায়ে মা'দ্রাসাছাত্রী সুমাইয়া আক্তার তার চাচাতো ভাই রাফিকে বাঁচানোর চেষ্টা চালায়।নি`'হত সুমাইয়ার বাবা ইউসুফ মিয়া জানান, এ সময় রাফিকে বাঁচাতে গিয়ে সুমাইয়া নিজেই নদের পানিতে তলিয়ে যায়।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নোয়াগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইউসুফ দেওয়ান জানান, এ ঘটনা খুবই ম`র্মান্তিক।

আরও পড়ুনঃপানিতে ফুল ভাসিয়ে তিন পার্বত্য জে'লায় শুরু হয়েছে বৈসাবি উৎসব। তবে করো’নার কারণে এবার বর্ষবরণের আয়োজনটা সীমিত।সোমবার (১২ এপ্রিল) ভোরে খাগড়াছড়ির চে'ঙ্গী নদীর পাড়ে জড়ো হন মা'রমা সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ। থালায় ফুল আর নৈবেদ্য সাজিয়ে পানিতে ভাসিয়ে শুরু হয় বৈসাবির তিন দিনের আনুষ্ঠানিকতা।

তবে অন্যান্য বছর ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলাসহ স'প্ত াহব্যাপী নানা আয়োজন থাকলেও এবার করো’নার কারণে তেমন কর্মসূচি নেই।এদিকে করো’না মুক্তির প্রার্থনায় কা'প্ত াই হ্রদের পানিতে ফুল ভাসালেন রা'ঙ্গামাটির চাকমা জনগোষ্ঠীর সদস্যরা। বর্ণিল পোশাকে অংশ নেন আদিবাসী তরুণ-তরুণীরা। পুরনোকে বিদায় আর নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে এ আয়োজন বলে জানান তারা।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *