ব্যবসায়ীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে যা করত ওরা

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি থেকে অ’পহরণ চক্রের ২ নারী সদস্যসহ তিনজনকে আট'ক করেছে র‌্যাব'। সেসময় উ'দ্ধার করা হয় অ’পহরণের শিকার হওয়া ওই ব্যবসায়ীকে। শনিবার (১০ এপ্রিল) বিকেলে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার হাটিকুমর'ুল এলাকায় র‌্যাব' এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব' ১২ এর মিডিয়া অফিসার মুহা'ম্ম'দ মহিউদ্দিন মিরাজ জানান, গত ৭ এপ্রিল বগু'ড়ার গাবতলী থেকে রাম চন্দ্র সাহা নামে এক ব্যবসায়ী নিখোঁজ হয়। এ সংক্রা'ন্ত একটি সাধারণ ডায়েরির কপি র‌্যাব'-১২ এর হাতে আসার পর র‌্যাব' ত'দন্ত শুরু করে।

এর এক পর্যায়ে অ’পহৃত রাম চন্দ্রের স্ত্রীর কাছে শারমিন নামে এক নারী ফোন করে তার স্বামীর মুক্তিপণের জন্য ২০ লাখ টাকা দাবি করে। এ ঘটনা র‌্যাব' অ’পহৃতের স্ত্রীকে নিয়ে অ'ভিযান পরিচালনা করে। শনিবার সকালে বেলকুচি থেকে অ’পহৃত ব্যবসায়ীকে উ'দ্ধার করে। এসময় অ’পহরণ চক্রের স'ঙ্গে জড়িত নারী সদস্য শারমিন খাতুন, তার মা মর'িয়ম বেগম এবং আফছার আলী নামে তিনজনকে আট'ক করা হয়। আট'ককৃতদের বাড়ি সিরাজগঞ্জ সদর উপজে'লার খোশাবাড়িতে। র‌্যাব' জানায়, গাবতলী এনজিওতে চাকরি করতো শারমীন।

এই সুবাদে তার স'ঙ্গে পরিচয় হয় ব্যবসায়ী রামচন্দ্রের। পরবর্তীতে শারমীন তাকে প্রেমের ফাঁ'দে ফেলে সিরাজগঞ্জে এনে হাত পা বেঁধে আট'কে রেখে মুক্তিপণ দাবি করে। এই অ’পহরণ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে ব্যাব'সায়ীদের প্রেমের ফাঁ'দে ফেলে তাদের অ’পহরণ করে মুক্তিপণ আ'দায় করতো বলে জানায় সংস্থাটি। আট'ককৃতদের বিরু'দ্ধে মা'মলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব'।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *