করোনাভাইরাস তাড়াতে বিমানবন্দরে পূজা!

সারা বিশ্বেই লাগামহীন গতিতে করো’নায় মৃ'ত্যু ও সংক্রমণ বাড়ছে। পরিস্থিতি ভ'য়াবহ রূপ নিয়েছে ভারতে। করো’নার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঘা'তে প্রতিদিন বাড়ছে সংক্রমণের গ্রাফ। করো’না থেকে সুরক্ষা পেতে উদ্যোগ নিয়েও পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে দেশটির সরকার।

এই অবস্থায় দেশটির বিভিন্ন রাজ্য একাধিক বিধিনিষে'ধ জারি করছে। তবে এবার ভ্যাকসিন নয়, করো’না দূর করতে পূজা-যজ্ঞ-সংকীর্তণে ভরসা রাখলেন মধ্যপ্রদেশের পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রী ঊষা ঠাকুর। আর তার জন্য জায়গা হিসেবে বেছে নিলেন খোদ ইন্দোর বিমানবন্দরকে। কিন্তু মন্ত্রীর মুখে নেই মাস্ক। নেটদুনিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। সমালোচনাও শুরু হয়ে গেছে।

সবাই প্রশ্ন করছেন, তিনি করো’না দূরীকরণের জন্য পূজা করছেন, এদিকে তার নিজের মুখেই মাস্ক নেই কেন।বিমানবন্দর চত্বরে আধঘণ্টারও বেশি সময় ধরে পূজা করেছেন এই বিজেপি মন্ত্রী। শুধু তাই নয়, এদিন মন্ত্রীর স'ঙ্গে পূজাতে বসতে দেখা যায় বিমানবন্দরের ডিরেক্টর এবং অন্যান্য কর্মীদেরও। বিমানবন্দরের ডিরেক্টর অর্য্যমা সানইয়াল দাবি করেছেন, ইন্দোর জে'লায় বাড়তে থাকা করো’না সংক্রমণ রুখতে এই পূজা করার পরিকল্পনা ছিল মন্ত্রীর।তিনি আরও বলেন,

বিপদে পড়লেই ইন্দোরের মানুষ দেবী অহল্যাব'াইয়ের স্মর'ণে আসেন। পূজার সময় সমস্ত করো’নাবিধি মেনে চলা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। তবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার ও জি নিউজের খবরে বলা হয়েছে, বিমানবন্দরে পূজার সময় মাস্ক ছাড়াই দেখা যায় ঊষাকে। এই নিয়েই শুরু হয়েছে সমালোচনা। তবে এই প্রথমবার নয়। করো’নাকালে প্রায়ই মন্ত্রীকে মাস্কবিহীন অবস্থায় দেখা গেছে।

এ বি'ষয়ে অবশ্য মন্ত্রীর সাফাই যে তিনি যজ্ঞ-অর্চনা করেন, প্রত্যহ হনুমান চালিশাও পাঠ করেন তাই মাস্ক পরার কোনো দরকার নেই।মন্ত্রীর দাবি, যজ্ঞের ওপর ঘুঁটে দিলে ১২ ঘণ্টার জন্য ঘর স্যানিটাইজ থাকে।প্রস'ঙ্গত, গত বছর ‘গো করো’না গো’ আউড়ে সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রা'ম'দাস অঠওয়াল। আর এবার মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রীর পূজার ভিডিও ভাইরাল হলো।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *