এটাই প্রথম কোনো ট্রেনের নামে সন্তানের নাম রাখা হলো

চলন্ত ট্রেনে সন্তান জন্ম দেয়া মুক্তি পারভীন (২৫) বাড়িতে ফিরেছেন। বুধবার দুপুরে দিনাজপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসা'পাতালের গাইনি ওয়ার্ড থেকে তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

বিনা ভাড়ায় মুক্তি পারভীন ও তার সন্তানকে রেলওয়ে ক'র্তৃপক্ষ তাদের গ্যাং'কারে করে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছে। বিদায়ের সময় বাংলাদেশ রেলওয়ে লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহী সুফি নুর মোহা'ম্ম'দ দিনাজপুর রেলওয়ে স্টেশনে তাদের গ্যাং'কারে তুলে দেন।

অ’পরদিকে দিনাজপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসা'পাতালের পক্ষ থেকে মুক্তি পারভীন ও নবজাতক মিতালীকে বিনামূল্যে প্রয়োজনীয় ওষুধ দিয়ে দেয়া হয়, যাতে করে বাড়িতে গিয়ে কোনো ওষুধ কিনতে না হয়। বাংলাদেশ রেলওয়ে লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহী সুফি নুর মোহা'ম্ম'দ বলেন, মুক্তি পারভীন এবং তার নবজাতক পুরোপুরি সুস্থ।

আমর'া গ্যাং'কার নিয়ে চেকিংয়ে বেরিয়েছিলাম যে, আমা'দের রেলওয়ের লোকজনরা করো’নাকালীন সময়ে অলস সময় পার করছেন কি না সেটা দেখতে। পাশাপাশি রেললাইন ও অন্যান্য কোনো মেরামতের কাজ রয়েছে কি না তা যাচাই করার জন্য। এরইমধ্যে আমর'া যখন জানতে পারলাম গত ৪ এপ্রিল ট্রেনে জন্ম নেয়া নবজাতক ও তার মাকে হাসা'পাতাল থেকে ছুটি দেয়া হবে,

তখন করো’নাকালীন সময়ে লকডাউনের মধ্যে মা ও সন্তানের যাতায়াতের জন্য অন্য যেকোনো মাধ্যমের চেয়ে ট্রেন নিরাপ'দ বলে মনে হলো। আর যেহেতু আমা'দের সুযোগ রয়েছে তাই আমর'া এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে মা ও নবজাতককে আমা'দের গ্যাং'কারে করে পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করেছি।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *