যে কারণে বুকে পিস্তল ঠেঁকিয়ে পুলিশ কর্মকর্তার ছেলের আত্মহত্যা

মুশফিকুল হক মাহিন। বয়স মাত্র ১৮ বছর। ছাত্র হিসেবে ছিল যথেষ্ট মেধাবী। চট্টগ্রামের পুলিশ লাইন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছে ছেলেটি।

আজ শুক্রবার (২ এপ্রিল) মেডিকেল ভর্তির পরীক্ষার্থী ছিলো সে। অথচ, আজই ঘটে গেলে এক ভ'য়াবহ রকমের ঘটনা। পড়াশোনার জন্য পুলিশ কমক'র্তা বাবার বকা সহ্য করতে না পেরে জেদের বসে পি'স্তল নিজ বুকে ঠেঁকিয়ে বড়ই অসময়ে চলে যেতে হলো তাকে!

এমন ঘটনায় তার পুরো পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। বকা দেওয়া পুলিশ কর্মক'র্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহিম উদ্দিন তার ছেলের জন্য হাউমাউ করে কেঁদে চলছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আজ শুক্রবার (২ এপ্রিল) দুপুরে বন্দর নগরীর আকবরশাহ এলাকায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) এসআই মহিম উদ্দিনের বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, এসআই মহিম উদ্দিন দুপুরে জুমা'র নামাজের জন্য মসজিদে গেলে ছেলে মাহিন ঘরের দরজা বন্ধ করে বাবার পি'স্তল দিয়ে নিজের বুকে পি'স্তল ঠেঁকিয়ে নিজেই গু'লিবি'দ্ধ হন।

সিএমপি পাহাড়তলী জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) আরিফ হোসেন বলেন, গু'লির শব্দ শুনে পরিবারের সদস্যরা দরজা ভেঙে রুমে ঢুকে গু'লিবি'দ্ধ ও র'ক্তাক্ত অবস্থায় মাহিনকে উ'দ্ধার করে। পরে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা মাহিনকে মৃ'ত ঘোষণা করেন। প্রাথমিক ত'দন্তে এটি আ'ত্মহ'ত্যা বলে আমর'া ধারণা করছি।

সিএমপির ডেপুটি কমিশনার (ডিসি-পশ্চিম) আবদুল ওয়ারিশ মাহিনের পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, আকবরশাহের শাপলা আবাসিক এলাকার মিরপুর আবাসিক এলাকার পানির ফ্যাক্টরির পাশে এসআই মহিম উদ্দিনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মহিম দুপুরে ডিউটি শেষে বাসায় ফিরে ছেলে মাহিনকে পড়াশোনা নিয়ে বকা দেন। পরে তিনি জুমা'র নামাজ আ'দায় করার জন্য মসজিদে চলে যান। এরপরই ছেলে মাহিন রুমের দরজা বন্ধ করে তার বাবার সার্ভিস পি'স্তল দিয়ে নিজেকে গু'লিবি'দ্ধ করেন।

এসআই মহিমের সার্ভিস পি'স্তল ও গু'লি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় একটি অ’পমৃ'ত্যু (ইউডি) মা'মলা হবে বলে জানান আকবরশাহ থানার ভারপ্রা'প্ত কর্মক'র্তা (ওসি) জহির হোসেন।

About admin

Check Also

মক্কা-মদিনায় ১০ রাকাত তারাবির নির্দেশ

করো’নাভাইরাসের কারণে সারাবিশ্বেই এক ভ'য়াবহ সঙ্কট তৈরি হয়েছে। এর মধ্যেই বিভিন্ন দেশে আগামীকাল থেকে রোজা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *