শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে না ৩০ মার্চ

পবিত্র শবে বরাতের ছুটি ২৯ মা'র্চের পরিবর্তে ৩০ মা'র্চ পুনর্নির্ধারণ করেছে সরকার। ফলে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩০ মা'র্চ খুলছে না কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ৩০ মা'র্চ স্কুল-কলেজ খুলে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ওইদিন রাতে সচিবালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকের পর এ ঘোষণা দেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হলেও প্রাক-প্রাথমিক খুলছে না। এ বি'ষয়ে পরে জানিয়ে দেয়া হবে বলে তিনি জানান। তবে পঞ্চম শ্রেণি, ১০ম ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন ক্লাস নেয়া হবে। অন্যান্য ক্লাসের শিক্ষার্থীদের স'প্ত াহে একদিন ক্লাস নেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম চলবে।

এরপরই প্রাথমিক শিক্ষা অধিদ'প্ত র ও মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদ'প্ত র স্কুল খুলতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা দেয়। ফলে দীর্ঘদিন প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ও সংস্কারের উদ্যোগ নেয় ক'র্তৃপক্ষ। এরপর স্কুল-কলেজ খোলার আগে শিক্ষকদের টিকাগ্রহণ বাধ্যতামূলক করেছে দুই মন্ত্রণালয়। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী প্রায় ৮৫ ভাগ শিক্ষক করো’না টিকার আওতায় এসেছে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

কিন্তু সম্প্রতি করো’না সংক্রমণের হার ও মৃ'ত্যু বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বি'ষয়ে জনমনে আবারো প্রশ্ন উঠেছে। এরই মধ্যে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন স্কুল-কলেজ খোলা হলে করো’না পরিস্থিতি ভ'য়াবহ আকার ধারণ করতে পারে। সোমবার ঢাকা শিক্ষাবোর্ড ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণ কার্যক্রমের ঘোষণা দিয়েছে। এবারো এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীদের কোন ধরণের নির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না বলেও শিক্ষা বোর্ড থেকে জানিয়ে দেয়া হয়।

এরইমধ্যে ম'ঙ্গলবার (২৩ মা'র্চ) বিকেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় শবে বরাতের ছুটি ২৯ তারিখ এর পরিবর্তে ৩০ মা'র্চ ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। এতে বলা হয়, মিনিস্ট্রি অব পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন-এ ৩৭ নম্বর ক্রমিকে বিধানে বর্ণিত প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সি'দ্ধান্ত অনুযায়ী পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে ছুটি নির্ধারিত তারিখ ২৯ মা'র্চের পরিবর্তে ৩০ মা'র্চ নির্ধারণ করা হলো।

যেসব অফিসে সময়সূচী ও ছুটি তাদের নিজস্ব আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে অথবা যেসব অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের চাকরি সরকার ক'র্তৃক অত্যাব'শ্যক চাকরি হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে, সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান নিজস্ব আইন অনুযায়ী জনস্বার্থ বিবেচনা করে এ ছুটি পুনর্নির্ধারণ করবে। এর ফলে ৩০ মা'র্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আর কোনো সুযোগ থাকলো না।

About admin

Check Also

আওয়ামী লীগের কেউ প্রকৃত মুসলমান না,নুরের কণ্ঠে হেফাজতের সুর!

হঠাৎ করেই ইসলামী মৌলবাদীদের স'ঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে অদ্ভুত এক বক্তব্য প্রদান করলেন ডাকসুর সাবেক ভিপি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *