দুই মাদ্রাসা শিক্ষক আটক টাকার অভাবে পাউরুটি কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উদযাপন!

কেকের পরিবর্তে পাউরুটি কে'টে ব'ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম'দিন পালন করায় দুই মা'দ্রাসা শিক্ষককে আট'ক করেছে পুলিশ। বুধবার (১৭ মা'র্চ) দুপুর ১২টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে মা'দ্রাসা থেকে তাদের আট'ক করা হয়। আট'করা হলেন- গোমস্তাপুর উপজে'লার বোয়ালিয়া বৌরতলা দাখিল মা'দ্রাসার সুপার আব্দুস সালাম (৫৫) ও শিক্ষক গো'লাম কবির (৪৮)।

জানা যায়, ব'ঙ্গবন্ধুর জন্ম'দিন এবং জাতীয় শিশু দিবস বিতর্কিত ও ব্য'ঙ্গাত্মকভাবে কেকের পরিবর্তে পাউরুটি কা'টার আয়োজন করেন মা'দ্রাসা সুপার আব্দুস সালাম। অনুষ্ঠানটি ফেসবুকে লাইভ প্রচার করেন ওই মা'দ্রাসার শিক্ষক গো'লাম কবির। ব্য'ঙ্গাত্মক এই আয়োজন ফেসবুকে দেখে স্থানীয়রা গোমস্তাপুর থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে দুই মা'দ্রাসা শিক্ষককে আট'ক করে পুলিশ।

গোমস্তাপুর থানার ভারপ্রা'প্ত কর্মক'র্তা (ওসি) দিলীপ কুমা'র দাস সাংবাদিকদের জানান, জাতির পিতা ব'ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম'দিনকে বিতর্কিত করার লক্ষে ব্য'ঙ্গাত্মকভাবে কেকের পরিবর্তে পাউরুটি কে'টে উদযাপন করে বোয়ালিয়া বৌরতলা দাখিল মা'দ্রাসার সুপার আব্দুস সামা'দ এবং ওই অনুষ্ঠানের লাইভ করা হয় অ’পর শিক্ষক গো'লাম কবিরের ফেসবুক আইডি থেকে। ফেসবুক লাইভেও তারা বিতর্কিত কথাবার্তা বলেছেন। স্থানীয়রা বি'ষয়টি পুলিশকে জানালে তাদের আট'ক করা হয়। তাদের বিরু'দ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

পড়ুন আরও খবর – ১৯৭০ সালের ২ এপ্রিল জাতির পিতা ব'ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ভৈরবে জনসভা করতে এসেছিলেন।ওই দিন তিনি প্রেস ক্লাবটি পরিদর্শন করে পরিদর্শন খাতায় লিখেছিলেন- ‘ভৈরব প্রেস ক্লাবে আসিয়া আমি আনন্দিত হইয়াছি। আমি আমা'র নিজের তরফ থেকে ও আমা'র সহকর্মীদের তরফ থেকে আপনাদেরকে আমা'র আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’ শেখ মুজিবুর রহমান ২/৪/৭০ (তার নিজের স্বাক্ষর)।

কিশোরগঞ্জের ভৈরব প্রেস ক্লাবের পরিদর্শন খাতায় ব'ঙ্গবন্ধুর নিজ হাতের লেখাটি ৫১ বছর যাব'ত সংরক্ষিত আছে। ভৈরব প্রেস ক্লাবের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক ও প্রবীণ সাংবাদিক বশীর আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, ১৯৭০ সালের ২ এপ্রিল ছিল ভৈরবে ব'ঙ্গবন্ধুর দলীয় জনসভা। এদিন আওয়ামী লীগ নেতা জিল্লুর রহমানসহ অনেক কেন্দ্রীয় নেতা ব'ঙ্গবন্ধুর স'ঙ্গে ভৈরব এসেছিলেন।

তিনি বলেন, ওই দিন দুপুরে শেখ মুজিবুর রহমান তার স'ঙ্গীয় কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা নিয়ে ভৈরব প্রেস ক্লাব পরিদর্শনে আসেন। আমি ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তখন ক্লাবের পরিদর্শন খাতাটি ব'ঙ্গবন্ধুর সামনে টেবিলে দিলে তিনি পরিদর্শন খাতায় মন্তব্যের ঘরে এ লেখাগু'লো লিখেছিলেন। তারপর তাদের আপ্যায়ন করলাম। বশীর আহমেদ বলেন, আমি ৩০ বছর ক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি। দায়িত্ব পালনকালে ব'ঙ্গবন্ধুর লেখার পরিদর্শন খাতাটি সযত্নে রেখেছি।

ভৈরব প্রেস ক্লাবের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এসএম বাকি বিল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, আমি দায়িত্ব পাওয়ার পর এই পরিদর্শন খাতাটি পেয়েছি। এ খাতাটি এখন কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে একটি ফাইলে রেখে ক্লাবের আলমা'রিতে সংরক্ষণ করে রেখেছি। প্রেস ক্লাবের সভাপতি অধ্যাপক শামসুজ্জামান বাচ্চু জানান, আজ ব'ঙ্গবন্ধুর ১০১তম জন্ম'দিনে আমর'া শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্র'দ্ধাভরে স্মর'ণ করছি। ব'ঙ্গবন্ধুর নিজ হাতের লেখা পরিদর্শন খাতাটি আমা'দের কাছে একটি দুর্লভ খাতা।

About admin

Check Also

খেলতে যাই

খেলতে যাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *