ফের লকডাউন প্রসঙ্গে যা বললেন স্বাস্থ্যের মহাপরিচালক

মহা'মা'রি করো’না ভাইরাসে গত এক স'প্ত াহ ধরে মৃ'ত্যু ঊর্ধ্বমুখী। এর মধ্যে সোম ও ম'ঙ্গলবার মৃ'ত্যু হয় ২৬ জন করে। গত এক স'প্ত াহে মা'রা গেছেন ১০১ জন। শুধু মৃ'ত্যুই নয়, কয়েকগু'ণ বেড়ে গেছে করো’নার সংক্রমণের হার।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করো’না শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৭১৯ জনের শরীরে। এমন পরিস্থিতিতে করো’না মোকাবিলায় দেশের সব হাসপাতাল প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহা'ম্ম'দ খুরশীদ আলম। এ সময় দেশে করো’নার কারণে ফের লকডাউনের বি'ষয়ে কোনো নির্দেশনা নেই বলেও জানান তিনি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরে ম'ঙ্গলবার (১৬ মা'র্চ) দুপুরে ফের লকডাউন প্রস'ঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডা. আবুল বাশার মোহা'ম্ম'দ খুরশীদ আলম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, কঠোর লকডাউনের বি'ষয়ে আপাতত কোনো নির্দেশনা নেই। তবে রেস্তোরাঁ, গণপরিবহন ও পর্যটন কেন্দ্রে জনসমাগম কমানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে দেশের সব বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক এবং ঢাকার কোভিড-১৯ হাসপাতালের পরিচালকদের স'ঙ্গে বৈঠক হয়েছে। তাদের সমস্যার কথা শোনা হয়েছে এবং সেগু'লো চিহ্নিত করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যের ডিজি আরও বলেন, যে যেখানে আছেন, সেখানেই চিকিৎসা নিন। বিদেশ থেকে আগতদের কঠোর কোয়ারেন্টাইন মানার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

গত বছরের শেষের দিকে এবং নতুন বছরের শুরুতে দেশে করো’নায় সংক্রমণ নিম্নমুখী দেখা যায়। গত ১৯ জানুয়ারি দৈনিক শনাক্তের হার পাঁচ শতাংশের নিচে নেমে এসেছিল, একপর্যায়ে তা তিন শতাংশেরও নিচে নেমে আসে। কিন্তু মা'র্চের শুরু থেকে সংক্রমণ বাড়তে থাকে।

গত এক স'প্ত াহের মধ্যে বৃহস্পতিবার (১১ মা'র্চ) মা'রা যান ৬ জন। এদিন আ'ক্রা'ন্ত হন ১ হাজার ৫১ জন। পরদিন শুক্রবার (১২ মা'র্চ) করো’নায় মৃ'ত্যু হয় ১৩ জনের। ওই দিন ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয় এক হাজার ৬৬ জন। শনিবার (১৩ মা'র্চ) সরকারি হিসাবে মা'রা যান ১২ জন। এদিন করো’না শনাক্ত হয় এক হাজার ১৪ জনের শরীরে।

পরবর্তী তিন দিন; রোব, সোম ও ম'ঙ্গলবার মৃ'ত্যু ও আ'ক্রা'ন্ত যথাক্রমে ১৮ জন ও ১ হাজার ১৫৯, ২৬ জন ও ১ হাজার ৭৭৩ এবং ২৬ জন ও ১ হাজার ৭১৯ জন।

About admin

Check Also

মক্কা-মদিনায় ১০ রাকাত তারাবির নির্দেশ

করো’নাভাইরাসের কারণে সারাবিশ্বেই এক ভ'য়াবহ সঙ্কট তৈরি হয়েছে। এর মধ্যেই বিভিন্ন দেশে আগামীকাল থেকে রোজা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *