নিয়োগ পাচ্ছেন ২১৫৫ জন শিক্ষক

দেশের সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গু'লোর শূন্য পদে ২ হাজার ১৫৫ জন শিক্ষকের নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। আগামী এক মাসের মধ্যে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) থেকে সুপারিশ প্রা'প্ত দের যোগদান কার্যক্রম শুরু করা হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদ'প্ত র সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা যায়, গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর পিএসসি থেকে ২ হাজার ১৫৫ জনকে সরকারি মাধ্যমিকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করে। এরপর তাদের ব্যক্তিগত জীবনের তথ্য সংগ্রহে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পুলিশ ভ্যারিফিকেশনের কাজ শুরু করা হয়। সম্প্রতি তাদের যোগদান শুরু করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে মতামত চাওয়া হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মক'র্তারা জানান, দেশের ৩১৯টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক সঙ্কট রয়েছে। এসব বিদ্যালয়ে সর্বশেষ ২০১১ সালে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। এরপর থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারদের সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হচ্ছিল। তবে বিসিএস নন-ক্যাডার থেকে স্কুলগু'লোর জন্য বি'ষয়ভিত্তিক পর্যা'প্ত শিক্ষক পাওয়া যাচ্ছিল না।

এছাড়াও বিসিএসের নন-ক্যাডার থেকে যারা শিক্ষক পদে নিয়োগ পেয়ে আসেন, তাদের বেশিরভাগই পরে অন্য চাকরিতে চলে যান। এতে বিদ্যালয়গু'লোয় শিক্ষক সঙ্কট থেকেই যায়। মুজিববর্ষ উপলক্ষে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগু'লো শিক্ষক শূন্য রাখা হবে না সরকারের এমন ঘোষণার প্রেক্ষিতে এককভাবে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করে পিএসসি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (সরকারি বিদ্যালয়) নাজমুল হক বলেন, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে পিএসসির সুপারিশপ্রা'প্ত দের নিয়োগ দেয়া হবে। এজন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মতামত চাওয়া হয়েছে। সেটি পেলে যোগদান কার্যক্রম শুরু করা হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে ২০২০ সাল পর্যন্ত শূন্য আসনে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। তার স'ঙ্গে ২০২৩ সাল পর্যন্ত কী পরিমাণ শিক্ষক শূন্য 'হতে পারে তার তালিকা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদ'প্ত রে চাওয়া হয়েছে।

About admin

Check Also

১০০ কোটি মানুষকে খাওয়ানো সম্ভব ,আরব দেশগুলোর অপচয় করা খাবার দিয়ে

প্রতি বছর বিশ্বে প্রচুর পরিমাণ খাবার নষ্ট হয়। এসব খাবার নষ্টের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে আরব …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *